#প্রতিবেদন

মারাত্মক, পোলিও টিকার বদলে ১২ শিশুকে দেওয়া হল স্যানিটাইজার – Indian Express Bangla

Feb 02, 06:51 / Mənbə: Bengali.indianexpress.com

পোলিও টিকার বদলে ১২ জন শিশুকে খাইয়ে দেওয়া হল স্যানিজাইজার। মারাত্মক এই ঘটনা ঘটেছে মহারাষ্ট্রে ইয়াভাটমল জেলার স্বাস্থ্য উপকেন্দ্রে। একজন-দু’জন নয়, ১ থেকে ৫ বছর বয়সী ১২ জন শিশুকে স্যানিটাইজার খাওয়ানোর অভিযেগ উঠেছে। জেলা স্বাস্থ্য আধিকারিক হরি পাওয়ার জানিয়েছেন, এই ঘটনার পরই শিশুদের জেলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আপাতত তারা সুস্থ, তবে ৪৮ ঘন্টা শিশুগুলোর স্বাস্থ্যের উপর নজর রাখা হয়েছে। পোলিও টিকাকরণ কর্মসূচিতে এই ধরণের ঘটনায় বিপাকে মহারাষ্ট্রের স্বাস্থ্যমন্ত্রক। কাজ গাফিলতির অভিযোগে ইতিমধ্যেই অভিযুক্ত একজন স্বাস্থ্যকর্মী, চিকিৎসক ও আশা কর্মীকে সাসপেন্ড করে দেওয়া হয়েছে।

ইয়াভাটমল জেলা পরিষদের চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার কৃষ্ণ পাঞ্চাল দ্য ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসকে বলেছেন, ‘ঘাতানজি তেহসিলের ভোমরা পাবলিক হেল্থ সেন্টারের কাপসি সাব-সেন্টারে ১২ শিশুকে পোলিও টিকার বদলে স্যানিটাইজার দেওয়া হয়েছে। স্বাস্থ্য কেন্দ্রের তিন কর্মী, কমিউনিটি হেল্থ অফিসার, আশা কর্মী ও অঙ্গনবাড়ি কর্মী দুপুর ২টোর সময় এই বিষয়টি বুঝতে পারেন। সঙ্গে সঙ্গেই শিশউদের অভিভাবকদের ডাকা হয়। শিশুদের পোলিও টিকা খাওয়ানো হয়। স্থানীয় পঞ্চায়েত সদস্য ও প্রধান পুরো ঘটনা জানতে পেরে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানান।’

কৃষ্ণ পাঞ্চালের কথায়, ‘১২ শিশুর মধ্যে একজনেই শুধউ বমি হয়েছে। পোলিও ড্রপ খেলেও এটা হয়ে থাকে। তবে এই ঘটনার জন্য কর্তব্যরত কর্মীরাই দায়ী। ইতিমধ্যেই অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ করা হয়েছে।’

কিন্তু এত বড় ভুল হল কীভাবে? ইয়াভাটমল জেলা পরিষদের চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার কৃষ্ণ পাঞ্চাল বলেন, ‘সাধারণভাবে ভুল হওয়ার কথা নয়। কারণ পোলিও টিকা যে বোতলে থাকে তার উপর প্রতিষেধকের নাম লেখা থাকে। তাই কীভাবে ভুল হল তা নিয়ে প্রশ্ন ওঠাই স্বাভাবিক। প্রশিক্ষিত কর্মীদের দিয়ে এই কাজ হচ্ছিল কিনা তা দেখা হচ্ছে। মেডিক্যাল অফিসারের ভূমিকাও নজরে রাখা হচ্ছে।’

বড়সড় বিপদের হাত থেকে তাঁদের সন্তানরা রক্ষা পাওয়ায় কিছুয়া হলেও স্বস্তির শ্বাস ফেলেছেন অভিভাবকরা। এই ঘটনার জন্য কাঠগড়ায় তুলেছেন স্বাস্থ্যকর্মীদের গাফিলতিকে।

Xəbərin mənbəsi: Bengali.indianexpress.com


info@deirvlon.com

dnews@deirvlon.com

+994 (50) 874 74 86

+994 (50) 730 38 13

Copyright © 2020 Deirvlon News. All rights are reserved.
Deirvlon Technologies.